বাধ্যতামূলক হচ্ছে কারিগরি শিক্ষা : আইডিইবিতে শিক্ষামন্ত্রী

12946 2018-05-23 TVET
Naima Yasmin

Naima Yasmin
Contributor

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, সাধারণ শিক্ষার সবক্ষেত্রে কারিগরি শিক্ষার একটি বিষয়ে পড়া বাধ্যতামূলক করার চিন্তা করছে সরকার। গত নয় বছরে কারিগরি শিক্ষায় যুগান্তকারী পরিবর্তন হয়েছে। বর্তমানে মোট শিক্ষার্থীর ১৪ শতাংশের বেশি কারিগরি শিক্ষা গ্রহণ করছে।

তিনি বলেন, কারিগরি শিক্ষার প্রতি শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের আকৃষ্ট করা, মান উন্নত করা, শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ এবং বিনিয়োগকারী ও শিল্প-মালিকদের সম্পৃক্ত করাসহ বিভিন্ন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। এ শিক্ষার মান উন্নয়নে অনেক উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

গতকাল রাজধানীর কাকরাইলে ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স বাংলাদেশ (আইডিইবি) মিলনায়তনে ‘বিল্ড স্কিল বাংলাদেশ ফর ইমার্জিং বাংলাদেশ অ্যাজ ডেভেলপড নেশন’ শীর্ষক গবেষণাগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন ও আলোচনা অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী এসব কথা বলেন।

নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, উন্নত ও আধুনিক বাংলাদেশ গড়তে হলে দক্ষ জনশক্তি গড়ে তুলতে হবে। এজন্য কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষার প্রসারের বিকল্প নেই। কর্মজীবনে প্রয়োগ করা যায় এমন আধুনিক প্রযুক্তিনির্ভর দক্ষতা অর্জন করতে হবে। বিনিয়োগকারী বা চাকরিদাতাদের চাহিদা অনুযায়ী জনবল তৈরি করতে হবে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, কারিগরি বিষয়ের শিক্ষকদের সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য ৪২০ জন শিক্ষককে সিঙ্গাপুরের নানিয়ান পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট থেকে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। আরো ১ হাজার ১০৫ জন শিক্ষক এ প্রতিষ্ঠানে প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন। এছাড়া চীনের গুয়াংজু পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট থেকে ৫৮১ জন শিক্ষক প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন। সেখানে আরো এক হাজার শিক্ষককে প্রশিক্ষণে পাঠানো হবে।

তিনি বলেন, বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার সময় দেশে মাত্র এক শতাংশ শিক্ষার্থী ভর্তি হতো কারিগরিতে। এখন তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪ শতাংশে। আগামী ২০২০ সালে এ হার ২০ শতাংশে উন্নীত করার লক্ষ্য রয়েছে।

নাহিদ বলেন, নারীদের কারিগরি শিক্ষায় উৎসাহী করতে প্রতিটি বিভাগীয় শহরে একটি করে নারী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট করা হচ্ছে। এরইমধ্যে চারটির কাজ শেষ, সেখানে লেখাপড়া শুরু হয়েছে। আগে কারিগরি শিক্ষায় মানুষের আগ্রহ ছিল না। বিদেশে দেড়কোটি মানুষ কাজ করলেও অভিজ্ঞতা সম্পন্নদের সংখ্যা হাতেগোনা।

তিনি বলেন, সারাদেশে আরও ৩৪টি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট স্থাপন করা হবে। বর্তমানে ৪৯টি সরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটি রয়েছে। দক্ষতা ছাড়া চাকরির নিশ্চয়তা নেই। আমাদের দেশে কারিগরি শিক্ষার প্রতি মানুষের অনীহা রয়েছে। প্রকৃত অর্থে কারিগরিতে যারা লেখাপড়া করেছে তারাই বেকারের অভিশাপ থেকে মুক্তি পেয়েছে। সবাই এখন দক্ষতা খোঁজে।

তিনি বলেন, এ ক্ষেত্রে আইডিইবি’র দক্ষ বাংলাদেশ নির্মাণ কর্মসূচি সহায়ক ভূমিকা রাখবে। তিনি দেশ ও জাতির স্বার্থে বর্তমান ও আগামীর শ্রমবাজারের বিষয়টি প্রাধান্য দিয়ে গবেষণাপত্রটি প্রণয়নের জন্য আইডিইবিকে ধন্যবাদ জানান।

অনুষ্ঠানে কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী বলেন, কারিগরি শিক্ষার প্রতি সরকার জোর দিচ্ছে। আগামীতে অষ্টম শ্রেণিতে একটি করে ট্রেড কোর্স চালু করার বিষয় ভাবছে সরকার।

আইডিইবির সভাপতি একেএমএ হামিদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী, অতিরিক্ত সচিব এ কে এম জাকির হোসেন ভূঞা, ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (এফবিসিসিআই) সভাপতি মো. সফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন এবং আইডিইবির সাধারণ সম্পাদক মো. শামসুর রহমান। গবেষণাপত্রের ওপর উপস্থাপনা পেশ করেন যশোর টিএসসির অধ্যক্ষ ড. সৈয়দ আবদুল আজিজ।

গবেষণাপত্রে বাংলাদেশের শ্রমশক্তির উৎপাদন দক্ষতার তুলনামুলক বিশ্লেষণ, দক্ষ শ্রমশক্তি উন্নয়নের কৌশলগত কর্মপরিকল্পনা ইত্যাদি বিষয়ে বিভিন্ন সুপারিশ তুলে ধরা হয়।

টেকনিক্যাল অ্যান্ড ভোকেশনাল এডুকেশন অ্যান্ড ট্রেনিং (টিভিইটি) বিষয়ক লিখা পড়তে আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করুন। চাকরি ও ক্যারিয়ার বিষয়ক আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিনঃ fb.com/engrjobs.bd 

  

Leave you comments here

  
Similar Post for You

Hotjobsbd সম্পর্কিত চাকরির তথ্য পেতে নিচের পেজে লাইক দিন

বিভাগসমুহ



Copyright © 2012-2017, Hotjobs. Developed by YOUTHFIREIT.